ডিএসইর বরখাস্ত কর্মকর্তাদের বিষয়ে ২ সদস্যের তদন্ত কমিটি

ডিএসইর বরখাস্ত কর্মকর্তাদের বিষয়ে ২ সদস্যের তদন্ত কমিটি

শোকজ করার আগেই বরখাস্ত হওয়া ৪ কর্মকর্তার বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। সোমবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) ডিএসইর এইচআর বিভাগের পক্ষ থেকে ২ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

ডিজিএম শফিকুল ইসলাম ভূঁইয়াকে তদন্ত কমিটির প্রধান করা হয়েছে। কমিটিকে ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কাছে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

গত বুধবার (৮ ফেব্রুয়ারি) ডিএসইর ভারপ্রাপ্ত এমডি এম সাইফুর রহমান মজুমদার প্রতিষ্ঠানটির মার্কেট অপারেশন্স বিভাগের প্রধান ও এক্সচেঞ্জটির সহকারী মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ রনি ইসলাম, একই বিভাগের ব্যবস্থাপক কামরুজ্জামান ও হুমায়ূন কবীর এবং সিনিয়র এক্সিকিউটিভ রাকিবুর রহমানকে তাৎক্ষণিক বরখাস্তের আদেশ জারি করেন।

সম্প্রতি তালিকাভুক্ত কোম্পানির আর্থিক ফলাফল ডিএসইর ওয়েবসাইটে প্রকাশের ক্ষেত্রে বেশকিছু ভুলের ঘটনা ঘটে। গত ৩১ জানুয়ারি ইস্টার্ন কেবলস লিমিটেড ও ১ ফেব্রুয়ারি বিচ হ্যাচারির ভুল আর্থিক ফলাফল ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে ডিএসই।

এক্ষেত্রে ইস্টার্ন কেবলসের শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হলেও ডিএসইর ওয়েবসাইটে এটিকে শেয়ারপ্রতি লোকসান হিসেবে প্রকাশ করা হয়। অন্যদিকে বিচ হ্যাচারির এক প্রান্তিকের ইপিএসের তথ্য অন্য প্রান্তিকে দেখানো হয়। লেনদেন চলাকালে বিভ্রান্তিকর এসব তথ্যের প্রভাবে বিনিয়োগকারীরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন বলে সে সময় অভিযোগ ওঠে।

সম্প্রতি ডিএসইর পর্ষদ সভায় বিভ্রান্তিকর এসব তথ্য প্রকাশের বিষয়ে এক্সচেঞ্জের ভারপ্রাপ্ত এমডি এম সাইফুর রহমান মজুমদারের কাছে জানতে চাওয়া হয়। এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে পর্ষদ।

এ সভায় পর্ষদের পক্ষ থেকে বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রকাশের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কারণ দর্শানোর (শোকজ) নোটিশ দিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে ভারপ্রাপ্ত এমডিকে পরামর্শ দেওয়া হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে ডিএসইর চার কর্মকর্তাকে তাৎক্ষণিক বরখাস্তের আদেশ জারি করেন ভারপ্রাপ্ত এমডি।

Leave a Reply