নিজ বাড়িতে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে মিঠামইনে রাষ্ট্রপতি

নিজ বাড়িতে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে মিঠামইনে রাষ্ট্রপতি

দীর্ঘ দুই যুগ পর আজ মঙ্গলবার সকালে কিশোরগঞ্জে মিঠামইন উপজেলায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সফরে তিনি প্রথমবারের মতো রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের বাড়িতে যাবেন।

আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিজের বাড়িতে স্বাগত জানাতে গতকাল সোমবার বিকালে বঙ্গভবন থেকে হেলিকপ্টারে কিশোরগঞ্জে আসেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। রাষ্ট্রপতির গ্রামের বাড়িতে হাওরের মাছ, অষ্টগ্রামের পনিরসহ স্থানীয় ঐতিহ্যপূর্ণ খাবার দিয়ে আপ্যায়ন করা হবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে।

হেলিকপ্টার থেকে নেমে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ তার বাড়ির সামনের সড়কে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আমি খুব খুশি তিনি আমার বাড়িতে আসছেন। আমাদের পরিবারের সবাই খুব খুশি।

তিনি বলেন, টুঙ্গিপাড়া কতবার গেছি, সেটা হিসেব করে বলতে পারব না। যতবারই গেছি, ততবারই বঙ্গবন্ধুকন্যা আমাকে রিসিভ করেছেন। আমি তো এখন রাজনীতির মধ্যে নেই। তিনি আমার বাড়িতে আসবেন, আমি তাকে রিসিভ করতে এসেছি।

শেখ হাসিনা প্রথমবারের মতো কিশোরগঞ্জে তার বাড়িতে আসছেন বলে জানিয়ে আবদুল হামিদ বলেন, ১৯৯৮ সালে আমার বাড়িতে আসার কোনো রাস্তা ছিল না। এখন বাড়ির গেটে গাড়ি দিয়ে যাব, আগে এখানে লঞ্চ ভিড়ত।

তিনি বলেন, ১৯৯৮ সালে শেখ হাসিনা কিশোরগঞ্জ সফর করার সময় কিছুটা দূর থেকে আমার বাড়ি দেখেছেন। কিন্তু আসেননি। সত্তরের নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু আমার প্রচারণার জন্য এসেছিলেন। তিনিও বাজার থেকে বাড়ি দেখেছেন, কিন্তু আসতে পারেননি।

এর আগে এখানে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন রাষ্ট্রপতির বড় ছেলে কিশোরগঞ্জ-৪ (ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম) আসনের সংসদ সদস্য প্রকৌশলী রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক।

হাওরের প্রায় সব রকম মাছ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আপ্যায়ন করা হবে বলে জানিয়ে রাষ্ট্রপতির ছেলে বলেন, রুই, কাতল, বাইম, চিতল, চিংড়ি, পাবদাসহ হাওরের যত ধরনের মাছ পাওয়া যায়, তা দিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে আপ্যায়ন করার চেষ্টা করব।

রাষ্ট্রপতির বাড়িতে আতিথেয়তা গ্রহণের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের বাড়ির কাছে বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হামিদ সেনানিবাস উদ্বোধন করবেন এবং বিকালে মিঠামইন হেলিপ্যাড মাঠে আওয়ামী লীগের জনসভায় যোগ দেবেন।

Leave a Reply