সহজ হলো জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন সংশোধন প্রক্রিয়া

সহজ হলো জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন সংশোধন প্রক্রিয়া

আগে নিবন্ধিত ব্যক্তির নাম-ঠিকানা কিংবা মা-বাবার নাম সংশোধন করতে জেলা প্রশাসনের অফিসে বা ইউনিয়নের ক্ষেত্রে নির্বাহী উপজেলা কর্মকর্তার কার্যালয়ের মাধ্যমে সংশোধন করতে হত। এতে কাঙ্ক্ষিত সেবা পেতে দীর্ঘদিন অপেক্ষাসহ নানা অভিযোগ আছে।

গত ২২ ফেব্রুয়ারি সারাদেশের প্রতিটি সিটি কর্পোরেশন, জেলা প্রশাসক এবং ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের একটি চিঠি দিয়ে সংশোধন প্রক্রিয়া সহজ করার কথা জানিয়েছে রেজিস্ট্রার জেনারেলের কার্যালয়।

খবরে বলা হচ্ছে, বিডিআরআইএস এমন এমটি সফটওয়্যার, যেটি ব্যবহার করে ছোটখাটো ত্রুটি- যেমন, ব্যক্তির নাম, তাদের বাবা-মায়ের নাম, ঠিকানা এবং সন্তানের সংখ্যা সংশোধন করা যাবে। আগে যা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, পৌরসভা, সিটি কর্পোরেশন বা ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের কাছে ছিল। এখন এই সেবা ইউনিয়ন পরিষদে স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালকের মাধ্যমে পাওয়া যাবে। এতে সময় ও জনদুর্ভোগ কমবে।

ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনের প্রক্রিয়া সহজ করার জন্য নাম, ঠিকানা এবং অন্যান্য ছোটখাটো ত্রুটিগুলো এখন স্থানীয় নিবন্ধন অফিসে সংশোধন করা যেতে পারে। এসব সেবা চালু করার জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার সাতগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অদুদ মাহমুদ বলেন, ভুল সংশোধনের জন্য মানুষকে আগে ইউনিয়ন থেকে উপজেলা বা এমনকি জেলা পর্যায়েও যেতে হতো। এখন নতুন এই উদ্যোগে ইউনিয়ন পরিষদ অফিসে বসেই সেই সেবা পাবেন নাগরিকরা।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন শাখার কর্মরত এক কর্মকর্তা জানান, আগের নিয়মে কেউ সংশোধনের জন্য আবেদন করলে তা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে পাঠানো হতো। কাজ শেষে ফেরত আসতে এক সপ্তাহ লেগে যেত। এখন সেটা আর হবে না।

উল্লেখ্য, জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনের নিয়মে বলা আছে, একজন ব্যক্তি নিবন্ধিত হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে ভুল সংশোধন করতে পারবেন।

Leave a Reply