বহুল আলোচিত সিসিকের হোল্ডিং ট্যাক্স বাতিল করলেন মেয়র

বহুল আলোচিত সিসিকের হোল্ডিং ট্যাক্স বাতিল করলেন মেয়র

নগরবাসীর লাগাতার আন্দোলন, আল্টিমেটামের পর সিলেট সিটি করপোরেশনের বহুল আলোচিত হোল্ডিং ট্যাক্স বাতিল ঘোষণা করেছেন মেয়র আনোয়রুজ্জামান চৌধুরী। শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টায় সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ ঘোষণা দেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত হয়েই মেয়র জানান, আগের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর সময়ে করা এই হোল্ডিং ট্যাক্স রি-অ্যাসেসমেন্ট নগরবাসীর কষ্ট লাঘবের জন্য তিনি ও তার পরিষদ বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

সম্প্রতি সিলেট নগরী উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল হোল্ডিং ট্যাক্স কে কেন্দ্র করে। ট্যাক্স বেড়েছিল কোথাও সহস্রগুণ, কোথাওবা কয়েকশ গুণ! এমন পরিস্থিতিতে প্রতিবাদ উঠছিল বিভিন্ন মহল থেকে।

শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে নগরভবনে তার পরিষদকে নিয়ে সাধারণ সভায় দীর্ঘ আলোচনার পর তিনি পরিষদের সদস্যদের নিয়ে পৌঁছান সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে। সেখানে সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে আগে থেকেই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছিল।

সাংবদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে সিসিক মেয়র বলেন, আপাতত এই অ্যাসেসমেন্ট বন্ধ থাকবে। আবার নতুন করে তা করা হবে। সেক্ষেত্রে রাজশাহী বা খুলনার মতো সিটির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে তা করা হবে।

তিনি বলেন, কাউন্সিলররাসহ নগরীর প্রতিটি এলাকার সচেতন মানুষের সঙ্গে আলাপ আলোচনা করেই হোল্ডিং ট্যাক্স রি-অ্যাসেসমেন্ট করা হবে।

তিনি বলেন, আমি জনগণের ভোটে নির্বাচিত মেয়র। জনগণের প্রতিপক্ষ নই। সুতরাং জনগণের কষ্ট হয় এমন কোনো কাজ বা এমন কোনো সিদ্ধান্ত আমার দ্বারা বাস্তবায়ন হবে না। ইতিমধ্যে যারা নতুন অ্যাসেসমেন্ট অনুযায়ী ট্যাক্স প্রদান করেছেন তাদের মূল্যবান অর্থ পরবর্তীতে নতুনভাবে সমন্বয় করারও ঘোষণা দিয়েছেন সিসিক মেয়র।

তবে মেয়র আনোযারুজ্জামান চৌধুরী শুরু থেকেই বলেছিলেন, জনগণের বিপক্ষে যায় এমন কোনো সিদ্ধান্তের কাগজে তিনি সই করবেন না। শেষ পর্যন্ত তিনি তার কথা রেখেছেন। তিনি নগরবাসীর প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সিলেট সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর ও কর্মকর্তা কর্মচারীরা।

Leave a Reply