সার্ভিসলেনসহ ঢাকা-সিলেট ৬ লেন নির্মাণে চুক্তি সই

সার্ভিসলেনসহ ঢাকা-সিলেট ৬ লেন নির্মাণে চুক্তি সই

ঢাকা-সিলেট করিডোর সড়ক উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ওয়ার্ক প্যাকেজ-৩ এর চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। চুক্তি অনুসারে সরাইল ইন্টারসেকশন হতে বুধন্তী বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত কাজ সম্পন্ন করা হবে।

বুধবার (৮ ফেব্রুয়ারি) নগরীরর সোনারগাঁও হোটেলে এক অনুষ্ঠানে এ চুক্তি সই করা হয়।

চুত্তিতে সই করেন প্রকল্পের পরিচালক এ কে মোহাম্মদ ফজলুল করিম, সওজ’র অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী (কুমিল্লা জোন) আবু হেনা মোহাম্মদ তারেক ইকবাল, হেগো -মীর আকতারের পক্ষে লিউ শাওমিই ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য প্রিন্সিপাল রওশন আরা মান্নান এমপি, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এবিএম আমিন উল্লাহ নূরী, বাংলাদেশে নিযুক্ত এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) কান্ট্রি ডিরেক্টর এডিমন জিনটিং, জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মো. ইসহাক, মীর আক্তার হোসেন লিমিটেডর ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ও এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি মীর নাসির হোসেন, মীর আক্তার হোসেন লিমিটেডের চেয়ারম্যান সোহেলা হোসেন, এবং পরিচালক মাহবুবা নাসির।  চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন অতিরিক্ত প্রকল্প পরিচালক মো. মাছুম সারওয়ার।

মীর নাসির হোসেন প্রকল্পের কাজের গুণগত মান বজায় রাখার আহ্বান জানান। বক্তব্যে ১৫ আগস্টে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারের সকল শহিদ ও একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধে বীর শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামরা করেন তিনি।

মীর আখতার হোসেন লিমিটেডে লট নং ডিএস-৫ এর আওতায় সরাইল ইন্টারসেকশন হতে বুধন্তি বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত ১৫ দশমিক ৭ কিলোমিটার ফ্রেক্সিবল পেভমেন্ট নির্মাণ করবে। চুক্তি মূল্য ১ হাজার ২৩২ কোটি ৯৫ লাখ টাকা। ১১টি কালভার্ট, ১১টি সেতু, একটি ওভার পাস, বাস বে ও সার্ভিস লেনে রিজিড পেভমেন্ট ইত্যাদিত নির্মিত হবে। এছাড়া দুটি ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করা হবে এই প্যাকেজর আওতায়।

ঢাকা-সিলেট জাতীয় মহাসড়কটি রাজধানী ঢাকা, বন্দরনগরী চট্টগ্রাম ও দেশের অন্যান্য অংশের সঙ্গে বৃহত্তর সিলেট বিভাগের সড়ক যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম। সিলেট বিভাগে তেল, গ্যাস, খনিজ সম্পদ, বন, চা-বাগান, পাহাড়, হাওড় ইত্যাদি প্রাকৃতিক সম্পদে ভরপুর যা বৃহত্তর সিলেট বিভাগের ৪টি জেলাকেই পর্যটন সমৃদ্ধ করে গড়ে তুলেছে যেখানে প্রতি বছর লাখ লাখ দেশি বিদেশি পর্যটক ভ্রমণ করেন।

Leave a Reply