রাশিয়াকে অস্ত্র দিলে গুরুতর পরিণতি হবে: চীনকে হুমকি যুক্তরাষ্ট্রের

রাশিয়াকে অস্ত্র দিলে গুরুতর পরিণতি হবে: চীনকে হুমকি যুক্তরাষ্ট্রের

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ নিয়ে চীনকে আবারও সতর্ক করলো যুক্তরাষ্ট্র। ইউক্রেনের বিরুদ্ধে রাশিয়ার জন্য কোনো অস্ত্র সরবরাহ করলে চীনকে গুরুতর পরিণতির মুখোমুখি হতে হবে।

হোয়াইট হাউজের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান সংবাদমাধ্যম সিএনএনকে বলেন, সামরিক সহায়তা প্রদান করবে কিনা, সে বিষয়ে বেইজিংকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তারা সে পথে হাটলে, প্রকৃত মূল্য দিতে হবে।

ইউক্রেন আক্রমণের পর এখন পর্যন্ত মস্কোকে সামরিক সহায়তায় দিয়েছে কিনা, তার প্রমাণ পাওয়া যায়নি বলে ‘এই সপ্তাহে’ একটি অনুষ্ঠানে সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন সুলিভান।

মস্কোকে সামরিক সহায়তা থেকে বিরত রাখতে বেইজিংকে প্রতিনিয়ত চাপ দিয়ে আসছে ওয়াশিংটন ও ন্যাটোর মিত্ররা। পশ্চিমা দেশগুলোর বিশ্বাস, ড্রোনসহ অন্যান্য প্রাণঘাতী সামরিক সরঞ্জাম দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করছে বেইজিং। পূর্ব ইউক্রেনের বাখমুতসহ অন্যান্য কৌশলগলত এলাকা দখলে নিতে ইউক্রেনীয় যোদ্ধাদের সঙ্গে ব্যাপক লড়াই চালাচ্ছে রুশ বাহিনী। নিজেদের ভূখণ্ড ধরে রাখতে পশ্চিমারা কিয়েভকে ভারী ট্যাংক ও দূরপাল্লার অস্ত্র দিয়ে সহায়তার ঘোষণা দেয়। জবাবে চীন মস্কোকে সামরিক সহায়তা দিতে পারে বলে শঙ্কা রয়েছে।

রবিবার (২৬ ফেবুয়ারি) এক সাক্ষাৎকারে মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার পরিচালক উইলিয়াম বার্নস বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, প্রাণঘাতী অস্ত্র সহায়তার বিষয়টি বিবেচনা করছে চীনা সরকার।

এ বিষয়ে রিপাবলিকান প্রতিনিধি মাইকেল ম্যাককলও একমত। তিনি বলেন, চীন যে অস্ত্রগুলো রাশিয়াকে পাঠানোর কথা ভাবছে, তার মধ্যে ড্রোন রয়েছে। প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং আগামী সপ্তাহে রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গে বৈঠক করতে মস্কো সফরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

Leave a Reply