পুঁজিবাজারে সুখবর আসছে: বিএসইসি চেয়ারম্যান

পুঁজিবাজারে সুখবর আসছে: বিএসইসি চেয়ারম্যান

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেছেন, সব মার্কেট ঠিক আছে। শুধু সেকেন্ডারি মার্কেটে সমস্যা। বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে বসেছি, তারা কিছুই বলতে পারে না। সেকেন্ডারি মার্কেটে তো আমাদের হাত নেই।

মার্চ থেকে পুঁজিবাজারে অনেক সুখবর আসা শুরু হবে বলে জানিয়েছেন শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম। ব্রোকারেজ হাউস ট্রাস্ট রিজিওনাল ইকুইটি লিমিটেডের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গতকাল মঙ্গলবার প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এমনটি জানান।

শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেন, বিনিয়োগকারীদের একটা ভয় হচ্ছে ফ্লোর প্রাইস উঠে যাবে। এ আতঙ্কে গুজব ছড়ানো হচ্ছে বাজারে। সাংবাদিক ভাইয়েরা সারাদিন ভালো কাজ করার পরও সন্ধ্যায় বিনিয়োগকারীরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুজবমূলক এমন পোস্ট দেন, যা সাংবাদিকদের সারাদিনের ভালো কাজকে শেষ করে দেয়।

তিনি বলেন, সব মার্কেট ঠিক আছে। শুধু সেকেন্ডারি মার্কেটে সমস্যা। বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে বসেছি, তারা কিছুই বলতে পারেন না। সেকেন্ডারি মার্কেটে তো আমাদের হাত নেই। প্রাইমারি মার্কেটে, বন্ড মার্কেটে আমরা ভালো করছি। মার্চ থেকে মে-জুনের মধ্যে ব্যাংকগুলোর ডিভিডেন্ড চলে আসবে। ব্যাংকগুলোর বিনিয়োগের হাজার হাজার কোটি টাকার সক্ষমতা বেড়ে যাবে। ঠিক কত হাজার কোটি টাকা বাড়বে, এর সংখ্যাটা না বলতে পারলেও এটা অনেক বড় হবে। মার্চে অনেক সুখবর আসা শুরু হবে।

বিএসইসির চেয়ারম্যান বলেন, বাংলাদেশের ব্যবসা আর আগের মতো নেই। একই মার্কেট নিয়ে সবাই কাড়াকাড়ি করে। বাংলাদেশে যোগ্যতা থাকলে আয় করা যায় বিদেশের থেকে বেশি। বাংলাদেশে প্রচুর সুযোগ।

তিনি বলেন, আমাদের দেশের মার্কেটে পার্চেসিং পাওয়ার প্রতিনিয়ত অনেক বাড়ছে। তানিয়ার মতো একজন যোগ্য সিইও এ প্রতিষ্ঠানে জয়েন করেছেন, এতে আমি ভীষণ খুশি। কোনো ধর্মান্ধ লোক নারীদের আটকে রাখতে পারছে না। প্রধানমন্ত্রী নারীদের বিষয়ে অনেক সোচ্চার।

ট্রাস্ট রিজিওনাল ইকুইটি লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) তানিয়া শারমিন বলেন, পুঁজিবাজারের উন্নয়নে কাজ করাই হবে আমাদের লক্ষ্য। যথাযথ আইন মেনে কাজ করব আমরা। পাশাপাশি নিয়ন্ত্রণ সংস্থার সব নিদর্শন না মেনে বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ নিরাপদ রেখে কীভাবে তাদের সঞ্চয় বৃদ্ধি করা যায়, শুরু থেকেই আমাদের সে লক্ষ্য থাকবে।

অনুষ্ঠানে বিএসইসির সাবেক কমিশনার আরিফ খান বলেন, বাংলাদেশের পুঁজিবাজার যে দিন দিন বড় হচ্ছে, তার একটা উদাহরণ আজকের এ প্রোগ্রাম। কীভাবে পুঁজিবাজারে স্বতন্ত্র ধারার একটি স্টক ব্রোকারেজ করা যায়, সেটা নিয়ে কাজ করা উচিত।

ট্রাস্ট রিজিওনাল ইকুইটির চেয়ারম্যান তরফদার মো. রুহুল আমিন বলেন, সবার আন্তরিক প্রচেষ্টায় আমরা এখানে এসেছি। পুঁজিবাজারের উন্নয়নে আমরা কাজ করে যাব।

Leave a Reply