টেলর সুইফটের কনসার্টে যুক্তরাজ্যের অর্থনীতিতে গতি বাড়বে

টেলর সুইফটের কনসার্টে যুক্তরাজ্যের অর্থনীতিতে গতি বাড়বে

পপ তারকা টেলর সুইফটের জনপ্রিয়তা এখন তুঙ্গে। তিনি যেখানে যান, সেখানেই মানুষ হুমড়ি খেয়ে পড়ে। তাঁর কনসার্ট আয়োজনে রীতিমতো গলদঘর্ম হতে হয় প্রশাসনকে।

বিবিসির সংবাদে বলা হয়েছে, টেলর সুইফট এবার যুক্তরাজ্য সফরে যাচ্ছেন। তাঁর এই সফরের বদৌলতে যুক্তরাজ্যের ঝিমিয়ে পড়া অর্থনীতিতে কিছুটা প্রাণ সঞ্চার হবে। এ সফরে যুক্তরাজ্যের অর্থনীতিতে ১ বিলিয়ন বা ১০০ কোটি পাউন্ড সঞ্চারিত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শুধু যুক্তরাজ্য নয়, ছয়টি মহাদেশে সফর করছেন হালের জনপ্রিয় পপশিল্পী টেলর সুইফট। এই সফরের অংশ হিসেবে জুন ও আগস্ট মাসে যুক্তরাজ্যে ১৫টি কনসার্ট করবেন সুইফট। এসব কনসার্টের টিকিট, যাতায়াত, খাওয়াদাওয়া, পোশাক বাবদ ভক্তরা গড়ে ৮৪৮ পাউন্ড ব্যয় করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। বার্কলেস ব্যাংক এই প্রাক্কলন দিয়েছে।

সুইফট যেখানেই যান, সেখানেই এমন উন্মাদনা সৃষ্টি হচ্ছেন ইদানীং। সে জন্য সুইফটোনমিক্স নামে একটি শব্দবন্ধ চালু হয়ে গেছে পশ্চিমা সংবাদমাধ্যমগুলোয়। এই শব্দবন্ধ চালু হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে বোঝা যায় টেলর সুইফটের অর্থনৈতিক প্রভাব কতটা।

টেলর সুইফটের এই ছয় মহাদেশ সফরের নাম ইরাস ট্যুর। এই সফরের টিকিট গত বছর বিক্রি শুরু হলে মানুষ হুমড়ি খেয়ে পড়ে; এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয় যে টিকিট বিক্রির ওয়েবসাইট রীতিমতো ধসে পড়ার উপক্রম হয়। যেসব শহরে তাঁর কনসার্ট হওয়ার কথা, সেখানকার আবাসিক হোটেলের সব কক্ষ আগাম ভাড়া হয়ে যায়।

মার্কিন এই শিল্পীর জনপ্রিয়তার আরেকটি নজির পাওয়া গেছে গত বছর। যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটল শহরে আয়োজিত কনসার্টে এত পরিমাণ শব্দ উৎপাদন এবং মানুষের আনাগোনা ও হইহুল্লোড় বেড়ে গিয়েছিল যে সেখানকার ভূতত্ত্ব বিভাগ জানায়, সেই কনসার্টের কারণে শহরে ২ দশমিক ৩ মাত্রার ভূমিকম্পের সমপরিমাণ কম্পন সৃষ্টি হয়েছিল।

গত বছর বিভিন্ন কনসার্ট থেকে টেলর সুইফট এত আয় করেছেন যে বছর শেষে ফোর্বস ম্যাগাজিনের শতকোটিপতিদের তালিকায় স্থান পেয়ে যান তিনি।

গত বছর সুইফটের সিয়াটল কনসার্টে অংশ নেন মার্কিন নাগরিক মেলিসা রুবি ও তাঁর মেয়ে। তিনি বিবিসিকে বলেন, এই কনসার্টে যাওয়ার জন্য জীবনের সবচেয়ে দামি টিকিট কিনতে হয়েছে তাঁকে। শুধু তা–ই নয়, যাওয়া-আসা, পোশাক, খাওয়াদাওয়াসহ অন্যান্য খরচ বাবদ তাঁদের মোট চার হাজার ডলার ব্যয় হয়।

মেলিসা রুবি আরও বলেন, ‘আমার মেয়েকে জীবনে এত খুশি হতে আর কখনো দেখিনি।’

বার্কলেস ব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইরাস ট্যুরের টিকিটের গড় দাম ২০৬ পাউন্ড। তবে ১৪ শতাংশ ভক্ত অন্যান্য খাতে আরও ৪০০ পাউন্ডের বেশি ব্যয় করবেন। ভক্তরা এক শহর থেকে আরেক শহরে গিয়ে কনসার্ট দেখবেন; যাতায়াত বাবদ তাঁরা গড়ে ১১১ পাউন্ড ব্যয় করবেন; আবাসনের জন্য ব্যয় হবে ১২১ পাউন্ড।

বাইরে খাওয়া, নতুন পোশাক, টেলর সুইফটের থিমে সাজানো আফটার পার্টি—এ সবকিছু মিলে যুক্তরাজ্যের অর্থনীতিতে ৯৯ কোটি ৭০ লাখ পাউন্ড সঞ্চারিত হবে বলে বার্কলেস ব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

গত বছর থেকেই আলোচনায় আছেন সংগীতশিল্পী টেলর সুইফট। এর অন্যতম কারণ তাঁর ‘দ্য ইরাস ট্যুর’—বহুল আলোচিত এই কনসার্ট ট্যুর নিয়ে নির্মিত সিনেমা গত বছরের অক্টোবর মাসে মুক্তি পায়। বিশ্বজুড়ে এই সিনেমা ২৬ কোটি ১০ লাখ ডলার আয় করে। গ্র্যামিজয়ী এই তারকার পাঁচ কোটির বেশি অ্যালবাম বিক্রি হয়েছে। এসবের বদৌলতে তিনি ফোর্বস ম্যাগাজিনের শতকোটিপতিদের তালিকায় ঢুকে যান।

Leave a Reply